ইলিশ মাছ ভাজা

ভাবছেন মাছ ভাজি করতে হবে এর আবার রেসিপি লাগে নাকি ? লাগে লাগে সবকিছুরই একটা ধরণ থাকে। সাধারণ একটা ডিমভাজি করতেও কিছু টেকনিকের দরকার পড়ে…. পেঁয়াজ-মরিচ কাটা কেমন হবে ? তেল কতটা গরম হবে ? কখন তেলে ডিম ছাড়তে হবে এইসবের তোয়াক্কা না করলে আপনার ডিম্ ভাজি খেতেও কিন্তু মজা লাগবে না। আমার কর্তামশাই যখনি ডিম ভাজে তখনি সে বলে ..আমি ডিম ভাজলে এমন আউলা ঝাউলা কেন হয়? ঐযে কিছু টেকনিক…… তো ডিম্ ভাজতে যদি টেকনিক লাগে মাছের রাজা ইলিশ ভাজতে বাদ কেন যাবে ?
যারা জানেন তারা তো জানেনই….নতুনদের জন্য আমার এই ছোট্ট প্রয়াস।

উপকরণ :


[tie_list type=”plus”]

  • ইলিশ মাছ – ৪ টুকরা
  • হলুদ গুড়া, মরিচ গুড়া ও লবণ পরিমান মতো
  • কাঁচা ও শুকনা মরিচ ৩/৪ টি করে
  • ভাজার জন্য তেল

[/tie_list type]

প্রণালী :


১। ইলিশ মাছের টুকরো গুলো ধুয়ে হলুদ-মরিচ গুড়া ও লবন দিয়ে মাখিয়ে রেখে দিন মিনিট দশেক । আমি ইলিশ মাছ এভাবেই ভাজি আর এটা খেতেই বেশি মজা লাগে।

২। অনেকে ইলিশ মাছে মশলা মাখিয়ে ভেজে খেতে পছন্দ করেন ….তারা পরিমাণমত আদা-রসুনবাটা, হলুদ-মরিচ-ধনিয়া গুড়া, লবন দিয়ে ভালভাবে মাখিয়ে ১৫ মিনিট ফ্রিজে নরমাল এ রেখে দিন। ফ্রিজে ১৫ মিনিট রাখলে মশলাগুলো মাছের গায়ে হালকাভাবে জমে যাবে এবং ভাজতে সুবিধা হবে।

৩। ফ্রাইপ্যান এ পরিমানমত তেল দিন। ইলিশ মাছ কখনো ডুবো তেলে ভাজবেন না, কিংবা খুব অল্প তেলেও ভাজবেন না । তেলটা এমন ভাবে দিন যাতে মাছের অর্ধেকটা ডুবে থাকে। তেল ঠিকমতো গরম হলে আঁচ কমিয়ে মিডিয়াম লো করে দিন। তারপর একে একে মাছের টুকরোগুলো ছেড়ে দিন। বেশি গরম তেলে মাছ ছাড়বেন না তাহলে মাছের বাইরের অংশ কালচে হয়ে যাবে আর ভেতরের অংশ কাঁচা থেকে যাবে।

৪। একপিঠ হয়ে গেলে উল্টে দিয়ে অন্য পিঠ এভাবে গোল্ডেন ব্রাউন করে ভেজে নিতে হবে। মনে রাখবেন ইলিশ কখনো বেশিক্ষন চুলায় রাখতে হয় না তাহলে শক্ত হয়ে যাবে। মাছ ভাজতে আমার মোট ৭-৮ মিনিট লেগেছে। এভাবে ভাজলে মাছের   রাইরের অংশ মুচমুচে আর ভেতরে নরম থাকবে যা খেতে খুব ভালো লাগে।

৫। মাছ ভাজা হয়ে এলে উঠানোর কিছুক্ষন আগে মাথা ভেঙে কয়েকটা কাঁচামরিচ দিন আর কয়েকটা গোটা শুকনা মরিচ । এতে করে মাছের মধ্যে দারুন একটা সুগন্ধ চলে আসবে। ভাজা শেষ হলে গরম গরম ধোয়া ওঠা বাসমতি চালের ভাতের সাথে একটুকরো লেবু ও কাঁচা পেঁয়াজ দিয়ে এই ভাজা মাছ নিয়ে বসে পড়ুন। সাথেইলিশ মাছ ভাজা তেলটা নিতে ভুলবেন না যেন। বিস্বাস করুন আপনার কিছুই লাগবে না। না কোনো ঝোল না মশলা। গরম ভাতের সাথে মাছ ভাজা তেল মেখে একটু লেবু কচলে খাওয়া শুরু করুন। …….আঃ কি মজা !