বিরিয়ানি মশলা রেসিপি

যেকোনো মাংস দিয়ে রান্না করা যায় এবং মোটামুটি সবসময় যে স্টাইলে আমরা বিরিয়ানী রান্না করি তার জন্য পারফেক্ট একটা বিরিয়ানী মশলার রেসিপি থাকলো এবারে আপনাদের জন্য।
গরম মশলা
গরম মশলা
DMCA.com Protection Status

বিরিয়ানি মশলা রেসিপি


বিরিয়ানি খেতে পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। তবে ভালো বিরিয়ানী রান্না করতে পারেন এমন মানুষ পাবেন হাতে গোণা কয়েকজন। শুধু রান্নার পদ্ধতির জন্য নয় পারফেক্ট স্বাদের বিরিয়ানী বানাতে পারফেক্ট বিরিয়ানী মশলারও দরকার হয়। বিরিয়ানী তো নানারকম হয়ে থাকে, রান্নার পদ্ধতির সাথে সাথে উপকরণেরও রকমফের থাকে তাতে।
তবে যেকোনো মাংস দিয়ে রান্না করা যায় এবং মোটামুটি সবসময় যে স্টাইলে আমরা বিরিয়ানী রান্না করি তার জন্য পারফেক্ট একটা বিরিয়ানী মশলার রেসিপি থাকলো এবারে আপনাদের জন্য।

উপকরণ

  • ১ চা চামচ এলাচ
  • ২ টি কালো এলাচ ছোট
  • ১ টেবিল চামচ দারুচিনি
  • ১ টা জয়ফল মাঝারি
  • ১ টি জয়ত্রী বড়
  • ১/২ চা চামচ কালো গোলমরিচ
  • ১/২ চা চামচ লবঙ্গ
  • ৪ টি তেজপাতা
  • ১ টেবিল চামচ ধনিয়া
  • দেড় টেবিল চামচ জিরা
  • ১ চা চামচ মৌরি বা মিষ্টি জিরা
  • ১ চা চামচ শাহী জিরা
  • ১ চা চামচ কাবাবচিনি
  • ১ টা তারকা মৌরি ছোট
  • ১৫ থেকে ২০ টা শুকনা মরিচ
  • ১.৫ চা চামচ আদা গুঁড়ো
  • ১ চা চামচ রসুন গুঁড়ো
  • ১/২ চা চামচ শুকনো কাঁচা পেঁপের খোসা গুঁড়ো
  • ১/৪ চা চামচ জাফরান বা জর্দার রং



প্রস্তুত প্রণালী

  • গুঁড়ো মশলা গুলো বাদে সবকিছু একসাথে মিশিয়ে নিন। তারপর অর্ধেক মশলা না ভেজে কাঁচা অবস্থায় গুঁড়ো করে নিন এবং বাকি অর্ধেক শুকনো তাওয়াতে হালকা করে ভেজে গুঁড়ো করে নিন। তারপর আগে থেকে নেয়া গুঁড়ো মশলা গুলো দিয়ে একসাথে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এভাবে করলে ভাজা এবং কাঁচা দুইরকম মশলার মিক্স হবে আর ফাইনাল বিরিয়ানী মশলার সুগন্ধ অনেক চমৎকার আসবে। এটাই আমাদের হোমমেড বিরিয়ানী মশলা।
  • এখানে যা মশলা হবে তা দিয়ে ২ কেজি মাংসের বিরিয়ানী রান্না করা যাবে। একবারে বেশি করে বানালে এয়ারটাইট বক্সে রেখে ৬ মাস পর্যন্ত ব্যাবহার করা যাবে। তবে তিন মাসের মধ্যে যেকোনো মশলা শেষ করা ভালো…এতে করে মশলার সুগন্ধ বেশি ভালো পাওয়া যায়।