বাচ্চার টিফিন বা বিকেলের আড্ডা জমজমাট করতে চিকেন স্প্রিং রোল-এর কোনো বিকল্প নেই । তাছাড়া বাসায় কোনো বিশেষ উপলক্ষ্যে খাবার টেবিলে যদি চায়নীজ মেন্যু রাখার কথা ভাবেন তাহলে মিল স্টাটার হিসেবেও রাখতে পারেন জনপ্রিয় এই এশিয়ান স্নাকসটি। আমি চিকেন দিয়ে করেছি আপনারা চাইলে বিফ কিমা দিয়েও একইভাবে রান্না করতে পারেন বা মাংস বাদে শুধু সবজি দিয়েও করা যাবে।

আমরা হরহামেশাই ফাস্টফুডের দোকান বা বেকারি থেকে প্যাটিসটা কিনে খাই। হালকা ক্রিস্পি এই প্যাটিসের ভেতরের পুরটার কারণেই খেতে বেশি মজা লাগে। আর বেশিরভাগ সময় সেটা হয় চিকেন ও পেঁয়াজ দিয়ে তৈরী। ভেতরের পুরটা তো ইচ্ছেমতো করে নেয়া যায়….সমস্যা হলো বাইরের আবরণটা নিয়ে। দেশের বাইরে যে কোনো সুপার শপে সহজেই এই পেস্ট্রি পাফ কিনতে পারবেন। আজকাল আমাদের দেশেও পাওয়া যায়। তবে দামটা নেহায়েত কম হয় না। ওই দামে ৩ প্যাকেট বানিয়ে ফেলা যায় ঘরেই। বানানো আসলে খুবই সহজ, উপকরণ ও কম শুধু একটু ধৈর্য সহকারে যত্ন করে বানালে আপনার বানানো প্যাটিস ও দেখতে অবিকল একই হবে আর টেস্ট ও লা-জওয়াব। চলুন দেখে নেয়া যাক …!

আমরা সবাই কমবেশি মোগলাই পরোটা খেতে পছন্দ করি আর সেজন্য ছুটি হোটেল-রেস্তোরার পানে। কিন্তু সেগুলো কতটা স্বাস্থ্যকর কখনো ভেবে দেখেছেন কি? রাস্তার পাশের এসব হোটেলের খাবার যারা খেতে চান না, তারা বাড়িতে চাইলেই বানিয়ে নিতে পারেন মজাদার মোগলাই পরোটা।

ভুনা খিচুড়ি আমরা কম বেশি সবাই পছন্দ করি। আর সেই খিচুড়ির সাথে যদি আচার আর মাংস যোগ হয় তাহলে স্বাদটা আরো বেড়ে যায়। ঝুমঝুম বৃষ্টি’র দিন উদযাপন করতে বা ছোটখাট গেট টুগেদারের পার্টিতে দারুন জমে যাবে এই আচারি চিকেন ভুনা খিচুড়ি। আপনারা চাইলে চিকেনের পরিবর্তে বেঁচে যাওয়া বিফ বা মাটন ভুনা ও ব্যবহার করতে পারেন।

অনথন অনেক ভাবে বানানো যায়..আরো অনেক উপাদান দিয়ে। তবে আমি সব সময় চেষ্টা করি সহজ উপায়ে রান্না করতে। বাসায় যদি কখনো চিকেন রান্না হয় তো আমি মাঝে মাঝে কিছুটা বোনলেস চিকেন আলাদা করে রেখে দেই পরে হালকা কিছু স্নাকস বানানোর জন্য... এই রেসিপি টি ও ঠিক সেভাবেই করা সম্পূর্ণ ভাবে নিজের মত করে সাধারণ কিছু উপকরণ দিয়ে...আশা করছি আপনাদের ভালো লাগবে ও কাজে আসবে। অনেকেই অনথনের ভাজ কিভাবে করে সেটা জানতে চেয়েছিলেন...তাদের সুবিধার জন্য ভিডিও দিয়ে দিলাম।

কেএফসি'র অনেক জনপ্রিয় একটি খাবার 'পপকর্ন চিকেন'। আইটেমটি খেতে বেশ মজা বলে ছেলে-বুড়ো প্রত্যেকের কাছেই অনেক পছন্দের খাবার। হালকা নাস্তার সময় কেএফসি রেস্টুরেন্টে ঢুকলে ছোটো বড় সকলেই অর্ডার করে থাকেন সবচাইতে মজাদার এই নাস্তাটি। কেমন হয় যদি এই পপকর্ন চিকেন বিকেলের নাস্তায় ঘরেই তৈরি করে নেয়া যায়? আজকে শিখে নিন কেএফসি’র মতো মজাদার মুচমুচে ‘পপকর্ন চিকেন’ তৈরি সবচাইতে সহজ রেসিপিটি।

চিকেন ফ্রাইয়ের মতোই চিকেন নাগেটস বেশ জনপ্রিয় একটি ফাস্ট ফুড। বাচ্চাদের টিফিনে হোক বা বিকেলের নাস্তায় চিকেন নাগেটস বেশ জনপ্রিয় খাবার। রেস্টুরেন্টে খেতে গেলে অনেকেই মজা করে চিকেন নাগেটস খেয়ে থাকেন। ইদানীং রেডিমেড চিকেন নাগেটস পাওয়া যায় বাজারে। কিন্তু বাইরের তৈরি এই চিকেন নাগেটস স্বাস্থ্যকর নয় মোটেও। কারণ এতে ৫০% মুরগীর মাংসও থাকে না। তাই স্বাস্থ্যের ওপর ঝুঁকি না নিয়ে ঝটপট বাসাতেই তৈরি করে নিন মজাদার এই ফাস্টফুডটি। বাসায় তৈরি চিকেন নাগেটসের স্বাদ পাবেন একই এবং সেই সাথে দুশ্চিন্তা করতে হবে না অস্বাস্থ্যকর খাদ্য নিয়ে।

ফ্রাইড চিকেন ছোট বড় সবার কাছেই অনেক জনপ্রিয় একটা খাবার । এখানে থাকছে ফ্রাইড চিকেন বানানোর সকল টিপস এবং ট্রিক্স । অনেকেই বলে বাইরে পুড়ে গিয়েছে, ভেতরে কাঁচা বা তেলে দিতেই কোটিং খুলে গিয়েছে এরকম সমস্যার কথা জানিয়েছেন । তাদের জন্য আজকে আমার এই রেসিপি রইলো ।

এই ঈদে তৈরি করুন একটু ভিন্নধর্মী নাস্তা চিকেন পাই। খুবই সহজ রেসিপি এবং খেতেও ভীষণ মজা। আতিথি আপনার তারিফ করবেই । আশা করি ভালো লাগবে।

ছুটির দিনগুলোতে পরিবারের সবার যেমন আবদার থাকে স্পেশাল কিছু খাওয়ার তেমনি গিন্নিমায়ের ও ইচ্ছে করে রান্না করার। কিন্তু আমরা যারা চাকরিজীবী আছি তাদের’ও তো এটা ছুটির দিন। তাই স্পেশাল খাবারের চক্করে সারাদিন রান্নাঘরে কাটাতেও মন চায় না। তাদের জন্য এই মোরগ পোলাও টাই মনে হয় এক ঢিলে দুই পাখি মারার মতো….স্পেশাল খাবার হলো….খাটনিও কম তাই আজ আপনাদের জন্য থাকছে ঝটপট তৈরি করা যায় এমন একটি মোরগ পোলাও এর রেসিপি । ঘরে পোলাও এর চাল আর মুরগি থাকলেই যথেষ্ট। বাকি উপকরন সবসময় সবার ঘরেই থাকে। চলুন দেখে নেই……।