কলিজার সিঙাড়া

kolijar singara
kolijar singara
DMCA.com Protection Status

কলিজার সিঙাড়া


বাংলাদেশী স্ট্রীট ফুডের তালিকায় আমার কাছে মনে হয় প্রথম স্থানটি গর্বের সাথে দখল করে আছে সিঙ্গাড়া/সিঙাড়া। শহর এলাকায় চটপটি ফুচকার জনপ্রিয়তা অনেক বেশি হলেও দেশের সব জায়গায় কিন্তু সহজে মিলে না। তবে সিঙাড়া এমন একটি খাবার যা শহর থেকে শুরু করে গ্রামগঞ্জেও সমানভাবে জনপ্রিয় এবং সহজলভ্য। একেক জায়গার সিঙাড়ার একেকরকম বিশেষত্ব থাকে..তারমধ্যে আলুর সিঙাড়া ও কলিজার সিঙাড়া সবচেয়ে বেশি পরিচিত। তাই আজ আমি আপনাদের কলিজার সিঙাড়া’র রেসিপি দিবো, আপনারা চাইলে কলিজা বাদ দিয়ে একইভাবে আলুর সিঙ্গাড়া বানিয়ে নিতে পারেন।

উপকরণ

খামিরের জন্য লাগবে:

  • ১ কাপ ময়দা
  • ২ টে চামচ তেল
  • ১/৪ চা চামচ কালজিরা
  • ১/৪ কাপ পানি
  • ১/২ চা চামচ লবন

পুরের জন্য লাগবে:

  • ১/২ কাপ আলু ছোট কিউব করে কাটা
  • ১ কাপ কলিজা (লবন হলুদ দিয়ে সেদ্ধ)

    টুকরা করে কাটা

  • ১/৪ কাপ মটরশুঁটি
  • ১/৪ চা চামচ পাঁচফোড়ন আধাভাঙ্গা
  • স্বাদমতো লবন
  • ১/২ চা চামচ মরিচ গুঁড়া
  • ১/২ চা চামচ জিরা গুঁড়া
  • ১/২ চা চামচ আদা-রসুন বাটা
  • ১/৪ চা চামচ গরম মশলা গুড়া
  • ১ টি পেঁয়াজ কুচি
  • ২ টি কাঁচামরিচ কুচি
  • ২ টেবিলচামচ ধনেপাতা কুচি
  • ১ টে চামচ তেল

প্রস্তুত প্রণালী

  • ময়দার সাথে তেল.লবন ও কালোজিরা দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর অল্প অল্প করে পানি দিয়ে একটু শক্ত খামির তৈরি করে ১/২ ঘণ্টা ঢেকে রেখে দিন।
  • প্যানে তেল গরম করে পাঁচফোড়ন দিন। তারপর পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভেজে বাকি মশলা ও লবন দিয়ে কষিয়ে নিন। সেদ্ধ করা কলিজা ও সামান্য পানি দিয়ে ৩/৪ মিনিট আবারো কষিয়ে নিতে হবে। মশলা থেকে তেল আলাদা হলে আলু দিয়ে একটু নেড়ে ১/২ কাপ পানি দিয়ে আঁচ কমিয়ে ঢেকে দিন। পানি শুকিয়ে আলু সেদ্ধ হলে কাঁচামরিচ ও মটর শুটি দিয়ে আরও একটু ভুনে নিন। ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন।
  • এবার মেখে রাখা খামিকে সমান ৬ থেকে ৮ ভাগে ভাগ করে নিন। প্রতিটি ভাগে ২ টি করে সিঙ্গাড়া হবে। এখন একেকটি ভাগ নিয়ে বেলন দিয়ে ডিম্বাকারে অর্থাৎ লম্বাটে গোল করে বেলে ছুরি দিয়ে আড়াআড়ি কেটে দু’ভাগ করে নিন।একভাগ দু’হাতে ধরে কাটা অংশ কোণ বা পানের খিলির মত ভাঁজ করে ভিতরে চেপে আলুর পুর ঢুকিয়ে দিতে হবে। তারপর খোলামুখে পানি লাগিয়ে দুভাঁজ করে ভালভাবে এঁটে দিন। আমার চ্যানেলের ভিডিও দেখলে ভাজের পদ্ধতিটা আপনারা আরো ভালো করে বুঝে নিতে পারবেন। এভাবে সব সিঙ্গারা পুর ভরে ডুবতেলে মুচমুচে সোনালী করে ভেজে নিতে হবে ।

দোকানের মতো পারফেক্ট সিঙ্গারা বানাতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস:

  • খামির বেশ টাইট বা শক্ত করে মাখতে হবে এবং তৈরি করার পর তাতে সামান্য তেল মেখে ভেজা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন অন্তত ১/২ ঘণ্টা।
  • সিঙ্গাড়া অবশ্যই ডুবোতেলে ভাজতে হবে। সবগুলা সিঙ্গারা বানিয়ে তার পর না ভেজে ২/৪ টে করে বানান আর তেলে ছাড়ুন, কারণ একেক ব্যাচ ভাজতে বেশ সময় লাগে।
  • তেল খুব গরম করবেন না। মাঝারি উত্তাপে সিঙ্গারা তেলে দিন। চুলার আঁচ হবে নিম্ন মাঝারি। একেকটা ব্যাচ ভাজতে ১৫-২০ মিনিট সময় নিন। হ্যাঁ, তা একটু সময় বেশি লাগবে বৈকি কিন্তু এতে আপনার সিঙ্গারা যেমন মুচমুচে হবে তেমনি এর গা ও মসৃণ হবে। ভাজার পর কোনো দানা উঠবে না আর বাইরের আবরণ রাবারের মতো ও হয়ে যাবে না।
  • সিঙ্গারার পকেট বানাতে রুটি খুব বেশি পাতলা করবেন না। এটা অনেকটা পরোটার মত মোটা হবে।
    তো, একবার ফের ট্রাই করে দেখুন। আপনার সিঙ্গারা কোন অংশেই দোকানের সিঙ্গারার থেকে কম হবে না।